২ ডিসেম্বর ২০১৬ শুক্রবার | সন্ধ্যা ৭টা | ড. নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তন, বাংলাদেশ মহিলা সমিতি

Lettering CAC

নাটক কাহিনী:
একটি নাট্যদল নাটক করতে এক জায়গা এসেছে। সন্ধ্যাবেলায় তাদের একজনকে তার জায়গার অভিনয়ের জন্য তৈরী করতে নিতে সবাই মিলে একটা মহড়া আয়োজন করে সন্ধ্যা বেলার নাটকের একটা মকট্রায়াল। অনেকই আসামী হতে চাইলেও দলের অন্যতম অভিনেত্রী লীলা মৈত্রকে আসামী সাজানো হয়।অভিযোগ আনা হয় ভ্রুণ হত্যার। তারপরেই শুরু হয় এক মজার খেলা। ‘নকল’ অভিযোগকে ‘সত্যি’ বলে প্রতিষ্ঠিত করতে লীলঅৎার সহ-অভিনেতারা কদর্যভাবে এক অদ্ভুদ নিষ্ঠুরতায় মেতে ওঠে। তার ব্যাক্তিগত জীবন নিয়ে কুৎসিত আক্রমনের মধ্যে দিয়ে, ‘আসল নাটক’ আর ‘নকল নাটক’ হতবাক হয়ে যায়। একজন নারীর অসহায়তার সুযোগ নিয়ে জান্তব উল্লাসে মেতে ওঠে সবাই। বন্ধ দরজাটা খুলে বাইরে যাবার চেষ্ঠা করে লীলা….কিন্তু এই সমাজ চাইলেও লীলার দরজা খুলে বাইরে জেতে পারে না… তারা হয়ে ওঠে নিছকই খেলার সমাগ্রী…

মঞ্চে
লীলা মৈত্র : গীতা আচার্য্য
রঘু সামন্ত : শান্তনু সাহা
পঞ্চানন সরখেল : সুজয় – ঘোষ
বিলু ভদ্র : নিরুপম নন্দী
সঞ্জয় সোম : দেবব্রত আচার্য্য
কমল মল্লিক : অনির্বান সেন
মিঃ মজুমদার : বিপ্লব মিত্র
মিসেস মজুমদার : সৌমি সরকার
১ম দর্শক : অমিয় দে/ সান্ধ্যসুদী ভট্টাচার্য্য
২য় দর্শক : শুভদীপ পাল
কৃতজ্ঞতা স্বীকার : মীনাক্ষী সাহা (ভার্মা)

নেপথ্যে
নাটক: বিজয় তেন্ডুলকর
মঞ্চভাবনা: দেবব্রত মাইতি
মঞ্চ নির্মান: ভ.পেন্দ্র সুত্রধর
আলো: বরুন কর
আবহ প্রক্ষেপন: শুভদীপ পাল
পোষাক: গীতা, সুজয়, শান্তনু,
মঞ্চ উপকরন: অনির্বান সেন
নিরুপম নন্দী
শিরোনাম অঙ্কন: সমীরন রায়
স্থিরচিত্র: প্রশান্ত ভট্টাচার্য
নেপথ্য সঙ্গীত: অপর্ণা ঘোষ (ভট্টাচার্য)
উপদেষ্টা: পার্থ বন্দ্যোপাধ্যায়