৭ ডিসেম্বর ২০১৬ বুধবার সন্ধ্যা ৫:৩০ মিনিট
নাসিরুদ্দিন নাদিম মঞ্চ, বহিরাঙ্গন, বাংলাদেশ মহিলা সমিতি

7.-Ashomvob-Kotha গল্প: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
নাট্যরূপ ও নির্দেশনা: ইভান রিয়াজ
দল: ইউআইইউ থিয়েটার অ্যান্ড ফিল্ম ক্লাব

নাটক কাহিনী:
তারপর…? তারপর…? তারপরে কি হইলো?… বালক তখন জানিত না, মৃত্যুর পরেও একটা ‘তারপরে’ থাকিতে পারে বটে, কিন্তু সে ‘তার-পরে’র উত্তর কোনো দিদিমার দিদিমাও দিতে পারে না। বিশ্বাসের বলে সাবিত্রী মৃত্যুরও অনুগমন করিয়াছিলেন। শিশুরও প্রবল বিশ্বাস। এইজন্য সে মৃত্যুর অঞ্চল ধরিয়া ফিরাইতে চায়, কিছুতেই মনে করিতে পারে না যে, তাহার মাস্টারবিহীন এক সন্ধ্যাবেলাকার এত সাধের গল্পটি হঠাৎ একটি সর্পাঘাতেই মারা গেল। গল্প যখন ফুরাইয়া যায়, আরামে শ্রান্ত দুটি চক্ষু আপনি মুদিয়া আসে, তখনও তো শিশুর ক্ষুদ্র প্রাণটিকে একটি স্নিগ্ধ নিস্তব্ধ নিস্তরঙ্গ ¯্রােতের মধ্যে সুষুপ্তির ভেলায় করিয়া ভাসাইয়া দেওয়া হয়, তারপরে ভোরের বেলায় কে দুটি মায়ামন্ত্র পড়িয়া তাহাকে এই জগতের মধ্যে জাগ্রত করিয়া তোলে। কিন্তু যাহার বিশ্বাস নাই, যে ভীরু এ সৌন্দর্যরসাস্বাদনের জন্যও এক ইঞ্চি পরিমাণ অসম্ভবকে লঙ্ঘন করিতে পরাস্ত হয়, তাহার কাছে কোনো কিছুর আর ‘তারপরে’ নাই, সমস্তই হঠাৎ অসময়ে এক অসমাপ্তিতে সমাপ্ত হইয়া গেছে। ছেলেবেলায় সাত সমুদ্র পার হইয়া মৃত্যুকেও লঙ্ঘন করিয়া গল্পের যেখানে যথার্থ বিরাম, সেখানে স্নেহময় সুমিষ্ট স্বরে শুনিতাম…
আমার কথাটি ফুরোল,
ন’টে গাছটি মুড়োল।
এখন বয়স হইয়াছে, এখন গল্পের ঠিক মাঝখানটাতে হঠাৎ থামিয়া গিয়া একটা নিষ্ঠুর কঠিন কণ্ঠে শুনিতে পাই–
আমার কথাটি ফুরোল না,
ন’টে গাছটি মুড়োল না।

মঞ্চে
কথক-০১ : শ্রাবণ
কথক-০২ : বিজয়
কথক-০৩ : লিংকন
কথক-০৪ : প্রণয়
রাজা : কিরণ
রাণী : আয়েশা
মা : জান্নাত শুভ
দিদিমা : মীম
ব্রাহ্মণপুত্র : রেজা
খোকা/ বালক : সানজিদা
রাজকন্যা : ফারিয়া

নৃত্যদল
শ্রাবণী
তামান্না
আনিকা
নীলিমা
আফরোজা
রিফা

নেপথ্যে
সহকারী নির্দেশনা : এম. ডি. ইমরানুল হক কিরণ
মঞ্চ ও দ্রব্য সামগ্রী পরিকল্পনা : মাইশা
পোশাক : মোঃ জাহিদ হোসেন অশ্রু ও মিম
আবহ সঙ্গীত নিয়ন্ত্রণ : হৃদয়
কোরিওগ্রাফি : মুন্না
মঞ্চ ব্যবস্থাপক : অনিক
প্রযোজনা ব্যবস্থাপক : মোঃ জাহিদ হোসেন অশ্রু